আপনার গাড়ীর চাকা কতটুকু পুরনো এবং বিপদজনক?

সমস্যার বিষয় হচ্ছে যে, অন্যান্য জিনিস যেমন দুধের কার্টনের মত গাড়ীর টায়ারে কোন মেয়াদ উত্তীর্নের তারিখ দেয়া থাকে না। আর এই বিষয় নিয়ে সরকার বা তৈরী প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে কোন ঐক্যমত্য নেই। এখন, আপনার গাড়ীর চাকা কতটুকু পুরনো এবং বিপদজনক?

 তাই আমরা শুধু এটুকুই বলতে পারি, আপনার চাকার বয়স যদি পাঁচ বছর এর কাছাকাছি হয় কিন্তু চাকার ক্ষয় তুলনামূলক বেশি হয়ে যায় সেক্ষেত্রে আপনার উচিত চাকা ঠিক আছে কিনা সেটা পরীক্ষা করানো।

আপনার গাড়ীর চাকা কতটুকু পুরনো এবং বিপদজনক

চাকার বয়স নির্ধারন করুন

একটি টায়ারের বয়স যত বাড়বে, এটি হঠাৎ করে ফেটে যাওয়ার ঝুকিও তত বাড়তে থাকবে। আপনার গাড়ীর চাকা কতটুকু পুরনো এবং বিপদজনক- আপনি নীচের নিবন্ধটি থেকে পড়তে পারেন ।

বয়স বাড়ার সাথে একটি চাকার ক্ষেত্রে কী কী ঘটে?

সময়ের সাথে সাথে রাবার টায়ার এর ফাটল উপরে এবং ভিতরে উভয় দিকেই বাড়তে থাকে। এই ফাটল এর কারণ এর কারণে আস্তে আস্তে চাকা স্টীল বেল্ট থেকে খুলে আসে।

car-tyre-replace-dangerous-productreviewbd

যে কোন গাড়ীর চাকাই বয়স বাড়ার সাথে সাথে নষ্ট হতে থাকবে। যদিও বেশিদিন চালানোর জন্য কিছু চাকার রাবারে “এন্টি-ওজিন্যান্ট” নামক রাসায়নিক উপাদান ব্যবহার করা হয় যা চাকাকে সহজে ক্ষয় হতে দেয় না। তারপরেও, বয়সের কারণে চাকার ক্ষয়রোধ করা কোন ভাবেই সম্ভব না।

একটি টায়ার কতদিন চলে?

গাড়ি নির্মাতা, টায়ার নির্মাতা, এবং রাবার সরবরাহকারীদের মধ্যে চাকার জীবনকাল নিয়ে মতভেদ রয়েছে। জাতীয় ট্রাফিক আইন অনুযায়ী টায়ার এর বয়স নির্ধারন এবং গাড়ী ও টায়ার নির্মাতাদের ওপর এ বিষয়ে কোন নীতি নির্ধারন করে দেয়া হয় নি। নিসান এবং মার্সিডিজ বেনজ এর মত কিছু গাড়ী নির্মাতা প্রতিষ্ঠান চাকার জীবদ্দশা অনুযায়ী প্রতি ছয় বছর অন্তর চাকা পরিবর্তনের নির্দেশনা দিয়ে থাকে।

কন্টিনেন্টাল এবং মিচেলিন এর মত কিছু নির্মাতার মতে একটি চাকা টানা দশ বছর পর্যন্ত চলতে পারে তবে প্রতি পাঁচ বছর অন্তর চাকা পরীক্ষা করা উচিত।

চাকার জীবদ্দশায় প্রভাব ফেলে এরকম কিছু বিষয় নিয়ে নিম্নে আলোচনা করা হল-

তাপ-

গবেষনা অনুযায়ী গরম আবহাওয়ায় চাকা তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে যায়। গবেষনায় আরো জানা যায় যে, উপকূলীয় এবং রৌদ্রময় আবহাওয়ার কারণে চাকা দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়। যারা এ ধরনের এলাকায় থাকেন, তাদের ক্ষেত্রে চাকা পরিবর্তনের সময় এই বিষয়টি মাথায় রাখা উচিত।

সংরক্ষন-

চাকার অতিরিক্ত জীবনকাল বা আয়ু – গ্যারেজ, দোকান বা এটি যেখানে সংরক্ষন করে রাখা হয়েছে তার উপর নির্ভর করে। আপনি যদি ট্রাকের মালিক হন সেক্ষেত্রে আপনি সাধারনত অতিরিক্ত চাকাটি গাড়ীর নিচে রাখেন যার কারনে চাকাটি ময়লা এবং ধুলোবালির কারণে দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়। আমেরিকার রাবার সরবরাহকারী সংস্থার পাবলিক এফেয়ার শাখার সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ড্যান জিএলিন্সকি বলেন – “চাকা ট্রাংক এর ভিতরে রাখা মানে একটি চুলার ভিতরে রাখা। এক্ষেত্রে, অতিরিক্ত চাকাটি কখনো দিনের আলো দেখতে পারে না। কিন্তু এটি যদি কোন চাকার সাথে লাগিয়ে রাখা হয় তাহলে এটি ব্যবহৃত না হলেও কৌশলগত দিক দিয়ে সার্ভিসের অন্তর্ভুক্ত থাকে।

যদিও গ্যারেজ বা দোকানে চাকা পরে থাকলে এর জীবদ্দশয়া প্রভাব পড়ে তারপরেও গাড়ীতে থাকা অতিরিক্ত চাকার তুলনায় এট অনেক দেরীতে পুরনো হয়।

ব্যবহারের ধরন-

চাকার জীবদ্দশানির্ভর করে, এটি কিভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে তার উপরও । চাকার ভিতরে কী পর্যাপ্ত হাওয়া আছে? চাকার হাওয়া কী অনেক বার পরিবর্তন করা হয়েছে? পাংচার হয়ে যাবার দরুন চাকা কী কখনো মেরামত করা হয়েছে? প্রতিদিন চালানো গাড়ী এবং সপ্তাহে এক দুই দিন চালানো গাড়ীর টায়ার এর জীবদ্দশায় অনেক পার্থক্য রয়েছে। একটি চাকা কত তাড়াতাড়ী নষ্ট হবে তা, এই সাধারনত এই বিষয়গুলোর উপ নির্ভর করে।

সঠিক পরিচর্যার মাধ্যমে একটি চাকার জীবনকাল বাড়ানো সম্ভব। এজন্য আপনাকে চাকায় সবসময় পর্যাপ্ত হাওয়া রাখতে হবে, চাকাগুলোকে নিয়মিত ঘুরাতে হবে এবং পরীক্ষা করতে হবে।

চাকার বয়স কীভাবে নির্ধারন করবেন?

চাকার বাইরের অংশে অনেকগুলো সংখ্যা এবং অক্ষর থাকে যেগুলো কিছু অর্থ বহন করে। কিন্তু ঐ গুলো পড়ে বোঝা অনেক কঠিন ব্যাপার।

চাকার বয়স নির্ধারনের জন্য আপনাকে চাকার ডট নাম্বার (ডিপার্ট্মমেন্ট অফ ট্রান্সপোর্টেশন) জানতে হবে। ২০০০ সালের পরে যেসব চাকা তৈরী হয়েছে সেগুলোর একটি চার ডিজিটের ডট কোড থাকে। প্রথম দুইটি নাম্বার দ্বারা বোঝা যায় কোন সপ্তাহে টায়ারটি তৈরী হয়েছিল এবং পরের দুইটি নাম্বার দ্বারা বোঝা যায় টায়ারটি কত সালে তৈরী হয়েছিল।

car-dot-tire-time-stamp-productreview

যদি কোন চাকার ডট কোড ১১০৯ হয় তাহলে বুঝতে হবে এটি ২০০৯ সালের ১১তম সপ্তাহে তৈরী হয়েছিল। ২০০০ সালের পূর্বের টায়ারগুলোতে তিন অংকের কোড থাকে এবং এগুলো থেকে চাকার বয়স নির্ধারন করা অনেক কঠিন। এই ধরনের কোডের ক্ষেত্রে, প্রথম দুইটি নাম্বার দ্বারা সপ্তাহ এবং শেষের নাম্বার দ্বারা এটি কোন দশকে তৈরী হয়েছে সেটি বোঝায়।

car-tiredate-productreviewbd

যেসব চাকা ১৯৯০ সালে তৈরী হয়েছে সেগুলোতে ডট কোডের পরে একটি ত্রিভূজ থাকে। কিন্তু, এই চিহ্ন ছাড়া ডট কোড দেখে চাকার বয়স নির্ধারন করা অনেক কঠিন। যেমন- একটি চাকার ডট কোড ৩২৮, সেক্ষেত্রে বোঝা যায় এটি তৈরীর বছরের ৩২তম সপ্তাহে তৈরী হয়েছে। তবে শেষের ডিজিট দেখে বোঝা কঠিন যে এটি ১৯৮৮ নাকি ৭৮ সালে তৈরী হয়েছিল।

how-to-read-tiers-productreviewbd

আসলে নির্মাতাদের কাছ থেকে এই ডট নাম্বার এর ধারনাটি আসে নি। এই নাম্বারটি মূলত চাকায় রাখা হয় যাতে ট্রাফিক বিভাগ চাকাগুলো পরীক্ষা করে সহজেই তৈরীর তারিখটি জানতে পারে।

ঝামেলার বিষয় হচ্ছে, এই ডট নাম্বার সব সময় চাকার বাইরের দিকে থাকে না। কারণ চাকা তৈরীর যে পদ্ধতি রয়েছে, সে ক্ষেত্রে চাকার ভিতরের দিকে তথ্যগুলো প্রিন্ট করা শ্রমিকের জন্য নিরাপদ। এ কারণে, অনেক নির্মাতাই এই নাম্বারগুলো চাকার ভিতরের দিকে বসায়।

এরপরেও আপনি ডট নাম্বার পরীক্ষা করতে পারবেন, এক্ষেত্রে আপনাকে জ্যাক ব্যবহার করে গাড়ী উপরে তুলে দেখতে হবে। কেনার সময় ডট নাম্বার ভালভাবে দেখে নিন এবং নোট করে রাখুন।

টায়ার এ কোন ছেড়া ফাটা আছে কিনা, তা টায়ার সরবারহকারী বা মেকানিকের মাধ্যমে নিয়মিত পরীক্ষা করান। কম্পন কিংবা গঠনগত পরিবর্তন ও টায়ার পুরনো বা নষ্ট হয়ে যাওয়ার লক্ষন । এক্ষেত্রে যত দ্রুত সম্ভব টায়ার পরিবর্তন করুন।

ব্যবহৃত টায়ার কেনা থেকে বিরত থাকুন

টায়ার অনেক ব্যায়বহুল এবং চাকা গাড়ীতে লাগানো এবং ব্যালেন্সিং এর জন্যও আলাদা খরচ রয়েছে। এ কারণে ক্রেতারা সাধারনত টাকা বাচানোর জন্য ব্যবহৃত টায়ার কেনে। অযত্নে ব্যবহার করা এক বছরের পুরনো টায়ারও বিপদজনক যেখানে আপনার জানা সম্ভব নয় চাকাটি কতটুকু যত্ন বা অযত্নের সাথে ব্যবহার করা হয়েছিল।

হয়তবা, আগের ব্যবহারকারী চাকায় হাওয়া কম রাখত, কিছুদিন পরপরই চাকায় হাওয়া ভরত। এমনও হতে পারে পাংচার হয়ে যাবার কারণে এটি মেরামতও করা হয়েছে অথবা চাকার বয়স অনেক বেশি।

নিশ্চিত হয়ে নিন আপনি নতুন টায়ারই কিনছেন

ব্যবহৃত হয় নি মানে এই নয় যে চাকাটি নতুন। ক্রেতারা সাধারনত দোকান থেকে কয়েক বছর আগে তৈরী হয়েছে এমন টায়ার কিনে। এক্ষেত্রে টায়ারটি যদি অনেক বছর আগে তৈরী হয় তাহলে এটি নতুন হলেও পুরাতন কারণ এটির ওয়ারেন্টির সময়সীমা দোকানে থেকেই শেষ হয়ে গেছে।

টায়ার পরীক্ষা করান:আপনার গাড়ীর চাকা কতটুকু পুরনো এবং বিপদজনক

গাড়ীর সব যন্ত্রাংশের মধ্যে গাড়ী নিয়ন্ত্রন এবং ব্রেক করার জন্য চাকাই হচ্ছে সবচেয়ে বেশী গুরুত্বপূর্ন। তাই, পাঁচ বছর পরে পরীক্ষা করানোর পর দোকান থেকে আপনাকে যদি চাকা পরিবর্তন করার জন্য বলে, তাহলে আপনার উচিত সাথে সাথে এটি পরিবর্তন করা কারণ এর উপর আপনার জীবন নির্ভর করবে।

Comments

comments

Join the discussion

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।