আপনার মোটরসাইকেল স্টার্ট হচ্ছেনা ? কি করবেন জেনে নিন

আপনার মোটরসাইকেল স্টার্ট হচ্ছেনা ?কি করবেন জেনে নিন


মোটরসাইকেল আমাদের যোগাযোগের ক্ষেত্রে এবং চলাচলের ক্ষেত্রে দ্রুত সময়ে পৌঁছানোর একটি অন্যতম মাধ্যম । ধরুন আপনি অফিসে কিংবা কোন জরুরী কাজে মোটরসাইকেল এর মাধ্যমে কোথাও যাবেন কিন্তু আপনার মোটরসাইকেলটি ঐ মুহুর্তে স্টার্ট নিচ্ছে না , আমার মনে হয় এর মতো বিরক্তিকর ব্যাপার হয়তো আর কিছুই হতে পারেনা ।

আপনার সবকিছুই ঠিক আছে কিন্তু আপনার মোটরসাইকেল এর হয়েছে যত সমস্যা ঠিক সময়মতো আপনার মোটরসাইকেল স্টার্ট হচ্ছেনা ।

এমন বিব্রতকর অবস্থায় কি করার থাকতে পারে আপনার ? জানতে আমাদের আজকের সম্পুর্ন লেখাটি পরুন , আশা করি এমন পরিস্থিতিতে আপনার কাজে সহায়ক ভুমিকা পালন করবে ।

চলুন তবে দেখে নেই হটাৎ করে মোটরসাইকেল স্টার্ট না নিলে আমরা কি করতে পারি সে সম্পর্কে কিছু তথ্য ।

 

Video: মোটরসাইকেল স্টার্ট না নিলে কি করবেন 

 

এমন অবস্থায় সবার মাথায় অনেক প্রশ্ন ঘুরপাক খেতে পারে যে কেন মোটরসাইকেল স্টার্ট হচ্ছেনা ? কি হলো হটাৎ করে ? এসব ছাড়াও অনেক কিছু । আবার অনেকের তো মাথা গরম হয়ে যায় ।

এমন অবস্থার সম্মুখীন হলে প্রথমেই আপনার যা করনীয় তা হল মাথা ঠাণ্ডা রেখে কিছু ছোটখাটো চেকআপ করে নেয়া , যেমন ধরুন –

১। আপনার মোটরসাইকেল এর মাঝে পর্যাপ্ত ফুয়েল আছে কিনা

মোটরসাইকেল তো আর এমনি এমনি চলবেনা , তার জন্য প্রয়োজন পরে ফুয়েল এর । আমরা অনেকেই প্রায়শই স্বল্প ফুয়েল থাকলেও কোনমতে বাড়ি চলে এসে মোটরসাইকেলটি রেখে দেই কিন্তু পরে আর মনে থাকেনা যে মোটরসাইকেল এর মাঝে ফুয়েল গতকাল স্বল্প ছিলো , তখন মোটরসাইকেল স্টার্ট না নেয়াটাই স্বাভাবিক ।

তাই ভালো করে আগে চেক করুন আপনার মোটরসাইকেল এর মাঝে স্টার্ট নেয়ার কিংবা চলাচলের জন্য সঠিক ফুয়েল আছে কিনা ।

এছাড়াও আপনার ফুয়েল লাইনের মাঝে কোথাও লিক আছে কিনা অথবা নিডল ভাল্ব এর মাঝে অনেক ময়লা জমে গিয়েছে কিনা এগুলো ভালো করে চেক করে দেখতে পারেন ।

ফুয়েল গজ এর মাঝে অনেক সময় বোঝা যায়না ঠিক কতটা ফুয়েল অবশিষ্ট রয়েছে তাই আপনি একটি সহজ এবং বলতে গেলে পুরনো পন্থা অবলম্বন করতে পারেন ফুয়েল চেক করার জন্য ।

আর সেটা হল আপনার মোটরসাইকেলটি এপাশ ওপাশ করে ঝাঁকি দিয়ে দেখুন । আমার মনে হয় এটা সবাই জানেন আর এটাই হয়তো আপ্নারা প্রয়োগ করেন মোটরসাইকেল এর ফুয়েল চেক করার ক্ষেত্রে , আবার আপনি চাইলে মোবাইলের ফ্ল্যাশ লাইট অন করে আপনার ট্যাংকের মাঝে পর্যাপ্ত ফুয়েল রয়েছে কিনা সেটা চেক করে নিতে পারেন ।

২। ফুয়েল ট্যাঙ্ক এর ভেন্ট চেক করাঃ

আপনার মোটরসাইকেল এর ইন্টেক সিস্টেম এর মাঝে অবিরাম ফুয়েল সরবরাহের জন্য আপনার মোটরসাইকেল এর ফুয়েল ট্যাংক এর মাঝে ছোট ভেন্ট সংযুক্ত থাকে ।

ভালো করে চেক করে দেখুন আপনার ট্যাংকের মাঝে থাকা ঐ প্রবেশ পথ অর্থাৎ ভেন্ট গুলো বন্ধ হয়ে গিয়েছে কিনা ।

আপনার মোটরসাইকেল এর মাঝে থাকা এসব ভেন্ট ব্লক হয়ে গেলে ফুয়েল সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায় এবং মোটরসাইকেল স্টার্ট নেয়না , তাই প্রয়োজনে সরু কাঠি কিংবা জোরে ফুঁ দিয়ে ভেন্ট গুলো পরিষ্কারের চেস্টা করে দেখতে পারেন ।

৩। ক্ল্যাচ ঠিকমতো এনগেজ না হলেঃ

আপনি যখন আপনার মোটরসাইকেল চালনার জন্য স্টার্ট দিবেন তখন বাইকের ট্রন্সমিশনের মাঝে ক্ল্যাচ লেভার সঠিক ভাবে ব্যবহার না হলে আপনার মোটরসাইকেল সঠিক ভাবে স্টার্ট নিতে সক্ষম হবে না ।

এর জন্য স্টার্ট না হলে প্রথমে আপনার মোটরসাইকেলটির ট্রান্সমিশন নিউট্রাল পজিশনে নিয়ে আসুন তারপর গিয়ার শিফটিং করে আপনার ক্ল্যাচ লেভারের প্রয়োগ সঠিকভাবে করে দেখুন ।

৪। ইনটেক সাইড কিংবা এক্সহোস্ট ব্লক হলেঃ

আপনার মোটরসাইকেল এর এয়ারবক্স কিংবা মাফলার এক্সিট এর কারনে অনেক সময় এ ধরণের সমস্যা হতে পারে ।

তাই ভালো করে স্টার্ট নেবার আগে আপনার মোটরসাইকেল এর এক্সহোস্ট পাইপ এবং এয়ার বক্স গুলো চেক করে দেখুন ।

৫। স্পার্ক প্লাগের ওয়ারিং এর মাঝে সমস্যা হলেঃ

মোটরসাইকেল চালকদের জন্য আমার মনে হয় এটা কোন নতুন সমস্যা নয় । প্রায়শই স্পার্ক প্লাগের তার এর মাঝে সমস্যা হবার কারনে বাইক স্টার্ট নেয়না ।

আর তাই ভালো করে এটি চেক করুন আর এর জন্য কোন মেকানিক এর প্রয়োজন হবেনা আপনি নিজেই এটি একবার আনপ্লাগ এবং রিপ্লাগ করে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন ।

৬। ইঞ্জিন কাট অফ সুইচঃ

স্পার্ক প্লাগের সমস্যার মতোই এটাও একটা অনেক কমন সমস্যা । আমরা প্রায়শই আমাদের মোটরসাইকেল স্টার্ট বন্ধ করার জন্য ইগ্নিশন কি টার্ন অফ করে দেই এবং ইঞ্জিন কিল বা কাট অফ সুইচ ও বন্ধ করে রাখি কিন্তু পরবর্তীতে স্টার্ট দেবার সময় সুইচ অন করতে ভুলে যাই তাই এটিও চেক করে নিন ।

৭। দুর্বল ব্যাটারিঃ

আপনার মোটরসাইকেল এর মাঝে থাকা সকল ইলেকট্রিক্যাল সিস্টেম সঠিক ভাবে চালনা করার জন্যই ব্যাটারি থাকে । আপনার ব্যাটারি দুর্বল হলে আপনার ইলেকট্রিক স্টার্ট সিস্টেম আর কাজ করেনা

এবং

এর ফলে আপনার মোটরসাইকেল এর মাঝে কিক স্টার্ট এর প্রয়োজন পরে আর তাই এটি চেক করে দেখতে পারেন ।

আশা করি উপরের সকল টিপস গুলো আপ্নারদের কাজে আসতে পারে , এর পরেও আপনার মোটরসাইকেল স্টার্ট না হলে কিংবা বড় কোন সমস্যা হলে আপনি মেকানিক এর শরণাপন্ন হতে পারেন ।

Comments

comments

Join the discussion

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।