ছেলেদের তৈলাক্ত ত্বকের জন্য বিউটি টিপস

ছেলেদের তৈলাক্ত ত্বকের জন্য বিউটি টিপস

আপনার ত্বক কি তৈলাক্ত? এই তৈলাক্ততা কি আপনাকে মলিন ও বিবর্ণ করে দেয়? আজ আমরা এমন কিছু বিউটি টিপস এর কথা বলবো যা আপনার ত্বকের তৈলাক্ততা দূর করতে সহায়তা করবে।

ত্বকের এই তৈলাক্ততার উৎপত্তি সেবাসিয়াস নামক গ্ল্যান্ড থেকে। ছেলেদের ত্বকের ধরন মেয়েদের থেকে সম্পূর্ণ আলাদা। কম বেশি সব বয়সের ছেলেদের ত্বকেই সেবাম উৎপন্ন হয়, যা সারাদিন ত্বককে তৈলাক্ত করে রাখার মূল কারণ। অতিরিক্ত তৈলাক্ত ত্বক আপনার চেহারায় একধরণের ক্লান্তির ছাপ ফেলবে। যা আপনার সৌন্দর্যকে পুরোপুরি ম্লান করে দিবে।

এছাড়াও তৈলাক্ত ত্বকে দাগ, ছোপ, বিবর্ণতা ও ব্রণের সমস্যা থাকে। এই জন্য ছেলেদেরও তাদের ত্বকের প্রতি যত্নশীল হওয়া এবং ত্বকের তৈলাক্ততা কমিয়ে সবসময় ত্বক পরিষ্কার রাখা উচিত।

ছেলেদের তৈলাক্ত ত্বকের জন্য বিউটি টিপস

ছেলেদের তৈলাক্ত ত্বকের জন্য বিশেষ টিপস :

 ১. Skin care Tips for Men with Oily face (তৈলাক্ত ত্বকের ছেলেদের ত্বকের যত্নে টিপস) :

মুখ ধুয়ে পরিষ্কার করা –

তৈলাক্ত ত্বকের ক্ষেত্রে আপনার মুখ ধুয়ে পরিষ্কার করাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। দৈনন্দিন বিভিন্ন কারণ, যেমন – রোদে পোড়া, ধূলাবালি, জীবাণু ইত্যাদি দ্বারা আপনার ত্বকের ক্ষতি হতে পারে। এইজন্য মুখ ধুয়ে পরিষ্কার করাটা জরুরি। আর যাদের তৈলাক্ত ত্বক তাদের প্রতিদিন কমপক্ষে ২ – ৩ বার মুখ ধুয়ে পরিষ্কার করা উচিত।

তৈলাক্ত ত্বকের জন্য ভালো মানের ক্লিনজার ব্যবহার করা –

ভালো মানের একটি ফেস ওয়াশ দিয়ে মুখ ধোঁয়া উচিত। অবশ্যই লক্ষ্য রাখতে হবে যে ফেস ওয়াশটি তৈলাক্ত ত্বকের উপযোগী ফর্মুলায় তৈরি কিনা। যা আপনার ত্বকে অতিরিক্ত তেল, সেবাম ও ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া দূর করতে সহায়তা করবে।

তৈলাক্ত ত্বকে ঘরোয়া পদ্ধতিতে তৈরি ক্লিনজার ব্যবহার –

যদি আপনি ঘরোয়া পদ্ধতিতে তৈরি প্রাকৃতিক উপাদানের ক্লিনজার ব্যবহার করতে চান তবে বেসন, চালের গুঁড়া ও মধু ব্যবহার করতে পারেন। অল্প পরিমাণ চালের গুঁড়া নিয়ে তাতে একটু মধু মিশিয়ে লাগাতে পারেন। ৩০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলবেন।

. Exfoliating or scrubbing the Men’s oily face (তৈলাক্ত ত্বকে এক্সফলিয়েটিং অথবা স্ক্রাবিং) :

তৈলাক্ত ত্বকে ফেস স্ক্রাবের ব্যবহার অনেকটা যাদুর মত কাজ করে। আপনি চাইলে ঘরে তৈরি করা স্ক্রাব অথবা ছেলেদের ত্বকের জন্য তৈরি বিশেষ ফেস স্ক্রাব বাজার থেকে কিনে ব্যবহার করতে পারেন।

বেশিরভাগ তৈলাক্ত ত্বকের ছেলেরাই ফেস প্যাক অথবা ফেস মাস্ক ব্যবহার করতে চান না। কিন্তু আপনার এই তৈলাক্ত ত্বকে ভালো মানের কিছু ফেস প্যাক অথবা ফেস মাস্ক চমৎকার কাজ করতে পারে। ছেলেরা তাদের ব্যস্ততার কারণে ত্বকের যত্ন নিতে পারে না।

তাই এক্ষেত্রে তারা সপ্তাহে অন্তত একবার সুযোগ মত ফেস প্যাক অথবা ফেস মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন। এটি খুবই কার্যকরী ফল দেবে। মাত্র ১৫ – ২০ মিনিট লাগতে পারে।

. Men’s Face packs for oil control (ছেলেদের ত্বকের তৈলাক্ততা কমাতে ফেস প্যাক) 

মুলতানি মাটি ও নিমের ফেস প্যাক –

যা যা লাগবে : মুলতানি মাটি ও নিম পাউডার।

পদ্ধতি :

  • এক চা চামচ মুলতানি মাটি ও এক চা চামচ নিম পাউডার নিন।
  • অল্প পানির দিয়ে ভালোভাবে মেশান।
  • খুব ভালোভাবে পুরো মুখে লাগিয়ে যতক্ষণ পর্যন্ত না শুকিয়ে যায় ততক্ষণ পর্যন্ত রাখুন।

এটি তৈলাক্ত ত্বকের জন্য খুবই কার্যকরী একটি ফেস প্যাক। এছাড়াও এটি আপনার মুখে ব্রণ হতে দেবে না যেহেতু এতে নিম রয়েছে। নিম অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল বলে এটি আপনার মুখে ব্রণ থাকলে তা দূর করতে সহায়তা করবে।

পেঁপের ফেস প্যাক –

এই প্যাকটি আপনার ত্বকের গভীরে জমে থাকা ময়লা দূর করবে এবং পুরোনো ব্রণের গর্ত দূর করতে সহায়তা করবে। এছাড়াও এটি হোয়াইট হেড ও ব্ল্যাক হেড দূর করবে। এই প্যাকটি তৈরি করতে শুধুমাত্র পেঁপে লাগবে।

  • পেঁপের একটি ছোট টুকরা বা স্লাইস নিন।
  • একটি সাধারণ চামচ বা কাঁটা চামচ দিয়ে ভালো ভাবে চটকে নিন।
  • যখন এটি প্লাপ মত হয়ে যাবে তখন মুখে লাগিয়ে, শুকিয়ে না যাওয়া পর্যন্ত রাখুন।
  • এরপর পানি দিয়ে ভালোভাবে মুখ ধুয়ে মুছে নিন।

. Toning the skin (ত্বকের টোনিং করুন) :

আপনি চাইলে আপনার ত্বকে তৈলাক্ততা কমাতে টোনিং করতে পারেন। এটি আপনার ত্বকের সেবাম কমাতে সহায়তা করবে। কিছু ঘরোয়া পদ্ধতিতে তৈরি প্রাকৃতিক উপাদানের টোনিং উপায় দেওয়া হলো –

টমেটো –

টমেটোর একটি পাতলা স্লাইস নিয়ে মুখে লাগান এবং ১০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। তৈলাক্ত ত্বক ফর্সা করতে এটি একটি কার্যকরী উপায়।

শসা –

একই ভাবে শসার একটি পাতলা স্লাইস নিয়ে সারা মুখে ভালো করে ঘষতে হবে। এটি আপনার মুখের তৈলাক্ততা কমাবে।

অ্যালোভেরা জুস –

তৈলাক্ততা কমানোর আরো একটি চমৎকার উপাদান। এটি রাতে লাগিয়ে সারা রাত রেখে সকালে মুখ ধুয়ে ফেলবেন।

. Face Scrubbers for oily skin and oil control (তৈলাক্ত ত্বকের তৈলাক্ততা নিয়ন্ত্রণে ফেস স্ক্রাব) :

 

ঘরে সহজ পদ্ধতিতে তৈরি স্ক্রাব ব্যবহারে আপনি আপনার ত্বকের তৈলাক্ততা কমাতে পারবেন অনেকটাই।

তৈলাক্ততা কমাতে ও হোয়াইট হেড দূর করতে বেকিং সোডা –

১/২ চা চামচ বেকিং সোডা নিয়ে তাতে সামান্য পানি মেশাতে হবে। এইবার পরিষ্কার পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে এই স্ক্রাবটি লাগাতে হবে। খুব ভালো করে ঘষতে হবে এইভাবে ২০ সেকেন্ড করে ধুয়ে ফেলবেন।

কমলার রস ও ওটসের স্ক্রাব –

এই স্ক্রাবটি তৈরি করতে আপনার অল্প কমলার রস ও সামান্য ওটস লাগবে। এই দুইটি খুব ভালো করে মিশিয়ে সারা মুখে ২০ মিনিট লাগিয়ে রাখতে হবে। এরপর ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত একবার ব্যবহার করতে পারেন।

 

যদি আপনি আপনার ত্বক সবসময় পরিষ্কার রাখেন এবং ভালো মানের ফেস ওয়াশ বা স্ক্রাব ব্যবহার করেন তবে খুব সহজেই ত্বকের তৈলাক্ততা কমিয়ে আনতে পারবেন।

Comments

comments

Join the discussion

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।