বাজাজ পালসার এনএস ১৬০ (Bajaj Pulsar NS 160)পারফর্মেন্স রিভিউ

বাজাজ পালসার এনএস ১৬০ (Bajaj Pulsar NS 160)পারফর্মেন্স রিভিউ


সম্প্রতি বাজাজ মোটর সাইকেল, বাংলাদেশ (Bajaj Motorcycle Bangladeshবাজাজমোটরসাইকেল বাংলাদেশ, Bajaj Point)বাজাজ অটো শেষ পর্যন্ত তাদের বাজাজ পালসার এনএস ১৬০ মডেল বাজারে এনেছে

আপনার কি মনে হয় ১৬০ সিসি সেগমেন্টের মোটরসাইকেল এর মাঝে পালসার এনএস ১৬০ সেরা হতে পারে ?

এতে রয়েছে চার স্ট্রোক সিঙ্গেল সিলিন্ডার ও অয়েল কুল্ড ডিটিএস আই ইঞ্জিন। ৮৫০০ আরপিএমে সর্বোচ্চ  ১৫.৫ পিএস ও ৬৫০০ আরপিএমে সর্বোচ্চ ১৪.৬ এনএম টর্কের শক্তিতে এটি চলতে পারবে যা বর্তমানে বাংলাদেশে সবচেয়ে শক্তিশালী।

বাজাজ পালসার এনএস ১৬০ মোটর সাইকেলটির দাম এক লাখ ৯৯ হাজার ৫০০ টাকা।

চারটি রঙে এটি পাওয়া যাবে।

চলুন আজ আমরা বাজাজ পালসার এনএস ১৬০ এর পারফর্মেন্স রিভিউ নিয়ে আলোচনা করি ।

bajaj-pulsar-ns-160-price-in-bangladesh

সময় পরিবর্তন হচ্ছে আর সেই সাথে ১৫০ সিসি মোটরসাইকেল এবং ১৫০ সিসি এর উপরে ক্ষমতাসম্পন্ন মোটরসাইকেল এবং নতুন নতুন সকল ব্র্যান্ডের আবির্ভাবও হচ্ছে

পালসার ১৫০ এনএস দাম:

নতুন বাজাজ পালসার ১৫০ এনএস(Bajaj Pulsar150 NS) নিয়ে আসছে

বাজাজ পালসার ১৫০:

নতুন বাজাজ পালসার ১৫০ সিসি ২০১৭ এডিশন এ নুতুন কি ফিচার আপগ্রেড এসেছে

বিগত কয়েকবছরে সারা বিশ্বে মোটরসাইকেল দুনিয়ার মাঝেও এসেছে অনেক পরিবর্তন । সেই সাথে পরিবর্তিত হচ্ছে একজন গ্রাহকের রুচি – চাহিদা আরো অনেক কিছু ।

১৬০ সিসি ইঞ্জিন ক্ষমতা সম্পন্ন বাইকগুলো সাধারণত স্পোর্ট মোটরসাইকেল এর কাতারেই পরে থাকে । ১৬০ সিসি সেগমেন্টের বাইকের মাঝে যদিও বাজাজ সবার পরেই তাঁদের অবস্থান তুলে নিয়ে এসেছে তারপরেও ১৬০ সিসি এর নতুন বাজাজ পালসার এনএস ১৬০ মোটরসাইকেলটি  ।

bajaj-pulsar-ns-160-price-in-bangladesh-blue

বাজাজ পালসার এনএস ১৬০ অনেকটাই কিন্তু বাজাজ পালসার এনএস ২০০ সিসি মোটরসাইকেল এর মতোই রাখার চেষ্টা করা হয়েছে ।

 স্টাইল , আউটলুক অনেক কিছুর মাঝেই এর সাথে এনএস ১৬০ এর মিল রয়েছে ।

পালসার মোটরসাইকেল

  শার্প হেডল্যাম্প , এলইডি টেইল ল্যাম্প এর আকর্ষণীয় ডিজাইন , স্কিনি টায়ার ইত্যাদি অনেক কিছুর মাঝে আলাদা একটা আকর্ষণীয়তা রাখার চেস্টা করা হয়েছে । বডিওয়ার্ক এর মাঝেও তেমন কোন পরিবর্তন না রাখা হলেও রাখা হয়েছে নতুন নীল কালার স্কিম ।

 রয়েছে , রেড , গ্রে এবং হোয়াইট শেড যা শুধুমাত্র বাজার পালসার এনএস ২০০ এর মাঝেই এতোদিন ছিলো ।

পালসার বাইক দাম ২০১৭

এনএস ২০০ এর মাঝেও কিন্তু অনেক আধুনিক ফিচার আমরা দেখতে পেয়েছি । যেমন ধরুন , ক্লিপ অন হ্যান্ডেলবার , ডিজিটাল – এনালগ কনসোল , স্প্লিট গ্র্যাব রেইল , স্প্লিট সিট ইত্যাদি ।

ঠিক তেমন ভাবেই এনএস ১৬০ এর মাঝেও এমন কিছু ফিচার রাখা হয়েছে এবং যার ফলে এটির মুভমেন্ট অনেক সহজ যদিও এনএস ১৬০ একটি পাতলা ওজনের মোটরসাইকেল কিন্তু নয় এবং ওজন ১৪২ কিলো ।

বাজাজ শোরুম

বৃষ্টি কিংবা যেকোন রকমের রাস্তার সাথে খাপ খাইয়ে নেবার জন্য এর মাঝে রয়েছে এমআরএফ এর টায়ার যা সামনের দিকে রয়েছে ৮০/১০০-১৭ টায়ার সিস্টেম এবং পেছনে ১১০/৮০-১৭ টায়ার সিস্টেম ।

বাজাজ পালসার এনএস ১৬০ এর ব্রেকিং সিস্টেম কিন্তু অনেকটাই বাজাজ পালসার ১৫০ সিসি বাইকের মতো । এর মাঝে রয়েছে আকর্ষণীয় বাইব্রি ব্রেকিং সিস্টেম । ফ্রন্ট সাইডে দেয়া হয়েছে ২৪০ মিমি ডিস্ক ব্রেকিং সিস্টেম এবং রিয়ার সাইডে রয়েছে ১৩০ মিমি ড্রাম ব্রেকিং সিস্টেম ।

স্ট্যান্ডস্টিল টেকনোলজির সুবিধার ফলে আপনি ইচ্ছে করলেই ৮০ কিলোমিটার গতি থাকা সত্ত্বেও মুহুর্তে ব্রেকিং এর কার্জকারিতা টের পেতে পারেন । ব্রেকিং টেস্টের মাঝে এটি ৮০ কিলোমিটার গতিতে স্ট্যান্ডস্টিল হতে সময় নেয় ৩.৮২ সেকেন্ড ৩৯.৫৪ মিটার  দুরত্বের মাঝে এবং ৬০ কিলোমিটার গতিতে ২.৮৩ সেকেন্ড সময় নেয় ২০.১৮ মিটার এর মাঝে ।

মোটর সাইকেলটির ওজন ১৪২ কেজি এবং সর্বোচ্চ ১২ লিটার পর্যন্ত জ্বালানি ধারণ করতে পারবে।

ওভারঅল রাইড কোয়ালিটি সম্পর্কে বলতে গেলে বলবো এটির সাসপেনশন গুলো ভাঙ্গাচোরা রোডে বাইক চালনার সময় মোটামুটি অনেক ভালো সাপোর্ট প্রদানে সক্ষম ।

এছারাও ১৬০ সিসি ক্ষমতা সম্পন্ন ইঞ্জিন এর ব্যাপারেও রয়েছে অনেক আলোচনা ।

ইঞ্জিন বাজাজ পালসার ১৫০ সিসি সেগমেন্টের বাইক গুলোর মতোই এবং একই কোয়ালিটির । এটি এএস ১৫০ সিরিজের ইঞ্জিন এর মাধ্যমে পরিচালিত । শক্তিশালী স্ট্রোক এর মাধ্যমে এটি ১৬০.৩ সিসি ক্ষমতা প্রদান করতে সক্ষম হয় ।

ম্যাক্সিমাম আরপিএম ৮৫০০ যা ১৪.৬  টর্ক এর মাঝে পাওয়া যায় । এক্ষেত্রে এর প্রতিদ্বন্দ্বী হতে পারে একমাত্র হোন্ডা হরনেট ।

০-৬০ কিলোমিটার পর্যন্ত স্পীড লিমিট এ পৌঁছাতে এর সময় লাগে ৫.৩৫ সেকেন্ড ।  ১০০ কিলোমিটার পর্যন্ত এর সময় প্রয়োজন পরে ১৬.৫৪ সেকেন্ড ।

ভি ভক্স এর মাঝে ১১১.১৭ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা স্পীড এর মাঝে এটি স্পিডোমিটার এ ১২৩ কিলোমিটার স্পীড দেখাতে সক্ষম হয় । রেভ রেঞ্জের ভেতরে ইঞ্জিন অনেক কুইক ফিল হয় তারপরেও এটির রিফাইন্মেন্ট সিস্টেম যদিও সুজুকি জিক্সার থেকে বেশি ভালো নয় ।

তারপরেও এটি হোন্ডা হরনেট থেকে অনেক অংশেই ভালো । গিয়ার সিস্টেম হিসেবে রয়েছে ৫ স্পীড গিয়ার বক্স সিস্টেম ।  গিয়ার সিস্টেম সম্পূর্ণ টল র‍্যাটিয়াস এবং শিফটিং সিস্টেম । আর পরিবর্তনের সময় তেমন ঝামেলা নেই বললেই চলে ।


বাজাজ মোটর সাইকেল, বাংলাদেশ (Bajaj Motorcycle Bangladesh,বাজাজ মোটরসাইকেল বাংলাদেশ, Bajaj Point), বাজাজ পালসার  বাজারজাত শ করে ।

বাজাজ পালসার ১৫০ এ এস:ইন্ডিয়াতে পালসার বাইক দাম বর্তমানে কিছুটা বেড়েছে কিন্তু সুখবর এই যে বাংলাদেশে উত্তরা মোটরস নতুন বাজাজ পালসার ১৫০ সিসি-২০১৭ এর দাম বাড়ায়নি।

বাজাজ শোরুম :

বাজাজ মোটরসাইকেল শো-রুম – Product Review BD

বাজাজ মটর বাইকের দাম তুলনামুলক  কম, বাজাজডিসকভার ১২৫ দাম ১৭৫,০০০ টাকা । বাজাজ ডিসকভার ১০০ দাম ১,৪৫,০০০/-  টাকা ।

বাজাজ ডিসকভার ১৫০ এফ দাম ১,৭৭,০০০/-টাকা ।

বাজাজ বাইকের মধ্যে মজবুত , দেখতে সুন্দর একটি বাইক বাজাজ সিটি ১০০ । গ্রামের লোকের নিকট এচা খুব প্রিয় । এটি ৯৯.২৭ সিসি ৪ স্ট্রোক সিঙ্গেল সিলিন্ডার ইঞ্জিন সমৃদ্ধ । এর ইঞ্জিন ৬.০ কিলোওয়াটে (৮.২০ এইচপি ) সরবোচ্চ ৭৫০০ আরপিএম শক্তি উৎপাদন করে আর ৮.০৫ এনএমএ ৪৫০০ আরপিএম ম্যাক্স ট্রক । বাইকটির স্পীড ৮০ কিমি/ ঘণ্টা আর মাইলেজ …

সাধ্যর মধ্যে সর্বোচ্চ আনন্দের আরেক নাম বাজাজ মটর সাইকেল  ।

বর্তমান মোটরবাইক বাজারে বাজাজ ডিসকভার ১২৫ এস টি  মডেল টি একটি সু-পরিচিত নাম । এই বাজাজ মোটরসাইকেল মানই এর এতও প্রশংসার কারন ।

বাংলাদেশে পালসার বাজারজাত করে উত্তরা মোটর্স লিমিটেড।

বাংলাদেশে জনপ্রিয় ১০ টি ১০০ সিসি মোটর বাইক – Product Review BD

বাজাজ মোটরসাইকেলের সর্বশেষ বাজারদর-

১। বাজাজ পালসার এএস ১৫০ সিসি = ২,৪১,৫০০/-
২। বাজাজ পালসার ১৫০ সিসি = ১,৯২,০০০/-
৩। বাজাজা ডিসকভার ১৫০ এফ = ১,৭৭,০০০/-
৪। বাজাজ ডিসকভার ১২৫ সিসি ডিস্ক = ১,৬৮,০০০/-
৫। বাজাজ ডিসকভার ১২৫ সিসি ড্রাম = ১,৫৬,৫০০/-
৬। বাজাজ ডিসকভার ১০০ সিসি = ১,৪৫,০০০/-
৭। বাজাজ প্লাটিনা ১০০ ইএস = ১,২৯,০০০/-
৮। বাজাজ প্লাটিনা ১০০ কেএস = ১,১৯,০০০/-
৯। বাজাজ সিটি ১০০ = ১,০৬,০০০/-

রেজিষ্ট্রেশন খরচ-

  1. 100 সি.সি. সরকারী জমা- 2 বছরের জন্য – 10,463/- টাকা, শুরুম নেয়- 14,000/- টাকা, 10 বছর – 19,663/- টাকা, শুরুম নেয়- 23,000/-।
  2. 125 সি.সি. সরকারী জমা- 2 বছরের জন্য – 12,073/- টাকা, শুরুম নেয়- 15,000/- টাকা, 10 বছর – 21,273/- টাকা, শুরুম নেয়- 24,000/-।
  3. 150 সি.সি. সরকারী জমা- 2 বছরের জন্য – 12,073/- টাকা, শুরুম নেয়- 16,000/- টাকা, 10 বছর – 21,273/- টাকা, শুরুম নেয়- 25,000/-।

সূত্রঃ Bajaj Motorcycle Bangladesh, বাজাজ মোটরসাইকেল বাংলাদেশ, Bajaj Point.

বাজাজ ডিসকভার ১৫০ এফ, বাজাজ প্লাটিনা  , বাজাজ পালসার   এবং  বাজাজ ডিসকভার ১০০ নিয়ে আমরা পরে আলোচনা করব।

 বাজাজ প্লাটিনা ১০০ ইএস মাইলেজ ভালো.

বাজাজ পালসার ১৫০ ইউজি ৪.৫ ২০১৭ মডেল বাজারে এনেছে – বাজাজ পালসার ১৫০

বাজাজ ভি১৫০, বাজাজ মোটর সাইকেল, এর নতুন মটর বাইক/ – বাজাজ ভি ১৫

বাজাজ ডিসকভার ১২৫ এস টি/ – Product Review BD

 

Comments

comments

Join the discussion

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।