বায়ো-অয়েল (Bio-Oil) রিভিউ

বায়ো-অয়েল (Bio-Oil) রিভিউ

বর্তমান  সময়ের সবচাইতে আলোচিত একটি স্কিন কেয়ার প্রোডাক্টের নাম বায়ো –অয়েল Bio-Oil” .। এবং অন্যান্য সকল স্কিন প্রোডাক্টের মাঝে অনলাইনে এটি নিয়েই আলোচনা সবার শীর্ষে অবস্থান করছে । আকর্ষণীয় এই স্কিন কেয়ার প্রোডাক্ট সম্পর্কে সকল তথ্য আপনাদের কে দেয়ার জন্যই আমাদের আজকের এই আয়োজন ।

বায়ো-অয়েল Bio Oil রিভিউ

 চলুন তবে, এর সুবিধা অসুবিধা গুলো দেখে নেই যেগুলো এই প্রোডাক্ট ব্যবহারের মাধ্যমে আমি ফেস করেছিঃ

বায়ো –অয়েল Bio-Oil”  এর সুবিধা সমূহঃ

  • স্কিন ফ্রেন্ডলি সকল তেল দ্বারা সমৃদ্ধ
  • এন্টি এজিং কম্পাউন্ড দ্বারা পরিপূর্ণ বিশেষ করে ভিটামিন ই এবং ভিটামিন এ
  • শুষ্ক , মধ্যম , অয়েলি , নরমাল , সুপার সেন্সেটিভ সকল ত্বকের মাঝেই ব্যবহারযোগ্য এবং সহজেই স্যুট করে যায়।
  • ফাস্ট এবজর্ব ক্ষমতা সম্পন্ন
  • গ্রিজি নয়
  • এলার্জির কোন ভয় নেই
  • ব্রেক আউটের সমস্যাবিহীন
  • ব্যবহারের ফলে জামাকাপড়ের মাঝে কোন দাগ লাগেনা
  • সম্পূর্ণ শরীর এবং চুলে ব্যবহার করা যায়
  • হালকা হারবাল সুগন্ধি যুক্ত
  • অনেকদিন টেকসই করে
  • দাম নাগালের মধ্যে
  • ট্রাভেল ফ্রেন্ডলি
  • ব্যবহারবিধির সাথে বাজারজাত করা হয়েছে

বায়ো –অয়েল Bio-Oil”  এর অসুবিধাঃ

 

  • ফলাফল একটু দেরিতে আসে
  • অনেক বেশি তৈলাক্ত ত্বক এর মাঝে ব্যবহার না করাই ভালো
  • সহজে পাওয়া যায়না

বায়ো –অয়েল Bio-Oil”  রেটিংঃ

 

বায়ো –অয়েল Bio-Oil”   এর বর্ননাঃ

কোম্পানির মতে বায়ো –অয়েল Bio-Oil” একটি সম্পূর্ণ নিরাপদ স্কিন কেয়ার প্রোডাক্ট ।

এটি আপনার ত্বকের মাঝে থাকা স্ট্রেস মার্ক , স্কার্স , এবং স্কিন টোন ইমপ্রুভ করতে অনেক সহায়ক ভুমিকা রাখে । এর মাঝে রয়েছে পিউরসিলিন অয়েল ।

বায়ো-অয়েল রিভিউ

এটি আপনার ত্বক এর মাঝে বয়সের ছাপ দূর করে  ।

বায়ো –অয়েল Bio-Oil” কি স্কিন সুরক্ষায় ভালো কাজ করে ?

 

২০০২ সালে প্রথম এই বায়ো –অয়েল Bio-Oil” বাজারজাত করা হয় । তারপরেও এটি এতোদিন খুব বেশি একটা মিডিয়াতে উঠে আসেনি ।

বর্তমানে এটি একটি পপুলার স্কিন কেয়ার প্রোডাক্ট যা আমেরিকা , আয়ারল্যান্ড , গুয়েতামালা, পেরু , রাশিয়া সহ বিভিন্ন জায়গায় যথেষ্ট সুনাম অর্জন করেছে ।

 কিন্তু কেন এই বায়ো –অয়েল Bio-Oil” এতো জনপ্রিয় ? 

এই প্রশ্নের জবাব খুঁজে পেতে হলে আমাদের অনেক গভীরে যেতে হবে এই প্রোডাক্ট সম্পর্কে ।

উৎপাদকের মতে বায়ো –অয়েল Bio-Oil”  স্পেশাল একটি ফর্মুলা যেখানে অনেক ধরণের ইফেক্টিভ উপাদানের মিশ্রণ রয়েছে যা সহজেই স্কিনের জন্য উপকারী এবং কোন ক্ষতি করেনা ।

বাইরে রোদের তাপে স্কিনের সকল ক্ষতি , ব্রণ এবং অশুদ্ধি সমস্যা , স্কিন টোন এবং এন্টি এজিং সকল কিছুর ক্ষেত্রেই এটি অসম্ভব ভালো কাজ করে আর তাই এর  জনপ্রিয়তা অনেক বেশি লাভ করতে পেরেছে ।

বায়ো –অয়েল Bio-Oil” এর উপাদানঃ

 

  • Rosemary Oil:

এই উপাদান প্রায় সকল ধরণের স্কিন কেয়ার প্রোডাক্টের মাঝে বিদ্যমান থাকে এন্টিমাইক্রোবিয়াল প্রোপার্টিজ হিসেবে।

এটি ত্বক এর মাঝে ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণ এবং ইনফেকশন প্রতিরোধে সক্ষম ।

ত্বক এর ভেতরে বিভিন্ন সেল ড্যামেজ এবং লুকানো ছোপ ছোপ দাগ দূর করতেও অসাধারণ ভাবে কাজ করে ।

  • Chamomile Oil:

এই উপাদানটি সম্পুর্ন পোড়া দাগ দূরীকরণে সক্ষম । এবং এছাড়াও অনেক ধরণের উপকারী কাজের জন্য এই উপাদানটি বিভিন্ন স্কিন কেয়ার প্রোডাক্টের মাঝে ব্যবহার করা হয় ।

  স্ট্রেস এর দাগ এবং ছাপ দূর করতেও এটি অনেক বেশি ইফেক্টিভ ।

Bio-Oil রিভিউ

  • Vitamin A:

ভিতামিন এ একটি কমন স্কিন কেয়ার প্রোডাক্টের মাঝে ব্যবহার করা উপাদান হিসেবেই পরিচিত । স্কিন শেডিং প্রসেস এর জন্য এটি বিশেষ ভাবে প্রয়োজনীয় একটি উপাদান ।

স্কিন পিগমেন্টেশন এবং ক্লিনজিং এর জন্যও এটি সেরা ।

  • Lavender Oil:

ল্যাভেন্ডার অয়েল অনেক আগে থেকেই স্কিন কেয়ার এর তালিকায় থাকা একটি ভালো উপাদান যা অনেক ইফেক্টিভ । ক্লিনজিং থেকে শুরু করে স্কিন ড্যামেজ সকল কিছুর জন্য এর ব্যবহার অসাধারণ ।

এটি স্কিনের মাঝে ফাঙ্গাস এবং ব্যাকটেরিয়া জনিত সকল সমস্যা দূর করে অনেক ভালো ভাবে ।

  • Vitamin E:

স্কিন কেয়ার এর জন্য ভালো এন্টি-অক্সিডেন্ট হিসেবেই ভিটামিন ই পরিচিত । যেকোন স্কিন কেয়ার প্রোডাক্টের মেয়াদ অনেকদিন টিকিয়ে রাখতেও এটি কাজ করে থাকে ।

  • Calendula Oil:

আপনার ত্বক এর ময়েশ্চারাইজিং এর জন্য ক্যালেন্ডুলা অয়েল এর গুরুত্ব অপরিসীম । ড্রাই এবং ফ্ল্যাকি স্কিন দূর করতে এটি অনেক কার্যকরি ।

বায়ো –অয়েল Bio-Oil” কি চটচটে ?

 

এটা অনেক বেশি চটচটে ধরণের প্রোডাক্ট নয় । এর চটচটে ভাব সঠিক পরিমাণে আছে ।  এটি অনেক লাইট ওয়েট এবং সহজেই ব্যবহারযোগ্য যেকোন প্রকার স্কিন এর জন্য শুধু মাত্র অতিরিক্ত অয়েলি ত্বক এর যারা তারা শুরুতেই পরীক্ষামূলক একটা ব্যবহার করে নিতে ভুলবেন না ।

 Bio-Oil-productreviewbd

মেয়াদকালঃ

৩৬ মাস পর্যন্ত এটি সবচাইতে ভালো ব্যবহার করতে পারবেন ।

ব্যবহার কিভাবে করবেন ?

বায়ো –অয়েল-bio-oil-prbd

আমার মতে এটি আপনি প্রতিদিন কম হলেও তিনবার ব্যবহার করবেন রেগুলার ৩ মাস ।

[ প্রেগন্যান্ট হলে দুইবার ব্যবহার করুন সেকেন্ড ট্রিমেস্টার এর পর থেকে ]

বায়ো –অয়েল Bio-Oil”  প্যাকেজিং কেমন  ?

একটি সাদা কার্টনের ভেতর “বায়ো –অয়েল Bio-Oil”   সুরক্ষিত অবস্থায় প্যাকেট করা হয়ে থাকে । এর ভেতরেই ব্যবহারবিধি থাকে । আপনি ব্যবহারবিধির মাঝে সম্পূর্ণ সঠিক ভাবে ব্যবহারের সকল প্রসেস ডায়াগ্রাম আকারে পাবেন ।

এর বোতলের ডিজাইন অনেক স্লিক এবং ট্রান্সপারেন্ট প্ল্যাস্টিকের তৈরি ।

  বোতলের টপ সাইডে একটি সাদা কালারের স্ক্রু ক্যাপ রয়েছে বোতল বন্ধ করার জন্য । বোতলটি সম্পূর্ণ লিকেজ প্রুফ সুতরাং অনায়াসেই আপনার হাত ব্যাগের মাঝে রেখে যেকোন জায়গায় নিতে পারবেন ।

আমার মতামত “বায়ো –অয়েল Bio-Oil”   সম্পর্কেঃ

আমার দেখা একটি সবচাইতে আলাদা অনুভূতি হল পিঙ্ক-অরেঞ্জ টোন প্রদান করে থাকে বোতলের বাইরে বের করার পর । কিন্তু হাতে নেবার পর এটি সম্পূর্ণ ট্রান্সপারেন্ট থাকে ।

এর সুগন্ধ অনেক হালকা এবং ভালো অন্যান্য সকল প্রোডাক্টের মতো কড়া নয় । “বায়ো –অয়েল Bio-Oil”   সম্পূর্ণ লাইট-ওয়েট একটি তেল । টেক্সচার একদম নন-গ্রিজি ।

আপনার ত্বক যতই শুষ্ক হোক না কেন মাত্র কয়েকফোটাই যথেষ্ট ত্বক কে ভালোভাবে ময়েশ্চারাইজিং এর জন্য । এটি আপনার ত্বক এর মাঝে তেল  চিটচিটে ভাব তৈরি করেনা ।

আপনার ত্বক হাইড্রেট থেকে শুরু করে ত্বক এর ইলাস্টিসিটি ধরে রাখতেও এটি অনেক সহায়ক ভুমিকা রাখে । আমি ৪ মাস ব্যবহার করা পর স্কিনের টোনের মাঝে অনেক পরিবর্তন লক্ষ্য করতে পেরেছি ।

আড়াই মাস পর থেকেই এর ফলাফল অনেকটাই লক্ষ্য করতে পেরেছি ।

তবে ব্লেমিশ এবং স্কার মার্কস এর জন্য কতটা দ্রুত কাজ করে তা আমি জানিনা কারণ এ সংক্রান্ত কোন ফলাফল এমি এখনো পাইনি তবে স্কিন টোন এর এন্টি এজিং এর জন্য অসাধারণ একটি প্রোডাক্ট এটা আমি বলতে পারি ।

বায়ো –অয়েল Bio-Oil”  রিভিউঃ

গ্রাহক এর ব্যবহার সংক্রান্ত রিভিউ যাচাই করলে দেখা যায় এর সম্পর্কে পজিটিভ রিভিউ সবচাইতে বেশি । অনেক গ্রাহকের মতেই এটি তাঁদের ত্বক এর টোন এবং বয়সের ছাপ দূর করতে অনেক ভালো কাজ করছে ।

এর মাইল্ড সুগন্ধির ব্যাপারেও সবার ভালো মতামত দেখা গেছে ।

তবে অনেকে বলেছেন এন্টি এজিং এর ব্যাপারে তারা কোন ফলাফল পায়নি , তবে আসলে এরকম ফলাফল নির্ভর করছে সম্পূর্ণ আপনার ব্যবহার করার নিয়ম এর উপর নির্ভর করে এবং ত্বক এর উপর ও অনেকাংশে নির্ভরশীল ।

বাংলাদেশে বায়ো –অয়েল Bio-Oil”   এর দাম কত ?

বাংলাদেশে বায়ো –অয়েল Bio-Oil”   এর দামঃ

 

  • ✿ ওজনঃ ১২৫ মিলি
    ✿ মূল্যঃ ২,000/- টাকা
  • ✿ ওজনঃ ৬০ মিলি
    ✿ মূল্যঃ ১,৫00/- টাকা

বাংলাদেশে এটি আপনি যেকোন প্রসাধনী সামগ্রীর দোকান থেকেই কিনে নিতে পারবেন অথবা অনলাইনেও বিভিন্ন ওয়েবসাইটের মাঝে  হোম ডেলিভারীর মাধ্যমে অর্ডার করে নিতে পারেন আপনার জন্য ।

এবং আমার মতে আজই অর্ডার করে নিন আপনার জন্য একটি “বায়ো –অয়েল Bio-Oil” .

Summary
বায়ো অয়েল (Bio Oil) রিভিউ
Article Name
বায়ো অয়েল (Bio Oil) রিভিউ
Description
বায়ো অয়েল (Bio Oil) রিভিউ বর্তমান সময়ের সবচাইতে আলোচিত একটি স্কিন কেয়ার প্রোডাক্টের নাম “বায়ো –অয়েল Bio-Oil” .। এবং অন্যান্য সকল স্কিন প্রোডাক্টের মাঝে অনলাইনে এটি নিয়েই আলোচনা সবার শীর্ষে অবস্থান করছে । আকর্ষণীয় এই স্কিন কেয়ার প্রোডাক্ট সম্পর্কে সকল তথ্য আপনাদের কে দেয়ার জন্যই আমাদের আজকের এই আয়োজন ।
Author
Publisher Name
http://productreviewbd.com/

Comments

comments

Join the discussion

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।