হোন্ডা গ্র্যাজিয়া (Honda Grazia)

নতুন রেকর্ড গড়তে চলেছে হোন্ডা গ্র্যাজিয়া (Honda Grazia)


মাত্র ২১ দিনেই বিক্রি হয়েছে ১৫০০০, নতুন হোন্ডা গ্র্যাজিয়া (Honda Grazia)

 হোন্ডা গ্র্যাজিয়া (Honda Grazia)

অ্যাক্টিভার পর আবারও হোন্ডা তার গ্র্যাজিয়ার মাধ্যমে বাজারে বিশেষ ভুমিকা রাখতে চলেছে বলেই মনে হচ্ছে। জাপানের এই কোম্পানিটি নভেম্বারের শুরুতে লঞ্চ হওয়ার মাত্র ২১ দিনের মধ্যেই হোন্ডা গ্র্যাজিয়া (Honda Grazia) ১৫,০০০ ইউনিট বিক্রি করে ফেলেছে।

ডিজাইনের দিক থেকে বলতে গেলে গ্র্যাজিয়া দেখতে আরো অনেক ম্যাচিউর এবং হোন্ডা ডিও( Dio) এর শার্পার ভার্সন, স্পোরটিং, এঙ্গেলার ডিজাইন, সাথে আছে টু-টোন স্টাউট ফ্রন্ট এপ্রন যেটা এলইডি হেডলাইট ডিজাইন করা অংশটাকে ধরে রাখে।

উপরে স্পিডোমিটার এবং টেকোমিটার সহ স্কুটারটিতে এক আরো একগাদা ডিজিটাল ইন্সট্রুমেন্টও আছে।

স্কুটারটির রিয়ারে রয়েছে হ্যালোজেন লিট-টেলল্যাম্প যেটা ডিও( Dio)থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে করা হয়েছে।

হোন্ডা গ্র্যাজিয়া (Honda Grazia)তে একই রকম ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়েছে যেমনটা হোন্ডা অ্যাক্টিভা ১২৫ (Honda Activa 125)তে রয়েছে।

১২৪.৯সিসি, সিঙ্গিল-সিলিন্ডার, এয়ার কুলড পাওয়ারট্রেইন ৬,৫০০ আরপিএম এ ৮.৫ পিএস এবং ৫,০০০ আরপিএম এ ১০.৫৪ এনএম টর্ক শক্তি উৎপাদন করতে পারে।

সুজুকি যেখানে এখন স্পোরটিয়ার লুকিং স্কুটার লঞ্চ করতে চলেছে সেখানে গ্রাজিয়া বর্তমানে সুজুকি এক্সেস ১২৫ (Suzuki Access 125) এর সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে।

স্টোরেজ এর জন্য গ্র্যাজিয়ার ফ্রন্ট এপ্রোনের পেছনে ছোট অতিরিক্ত কিছু যায়গা আছে, সেখানে একটি মোবাইল চারজিং সকেট আছে।

ইগনিশন কী হোলের পাশেই একটি পৃথক স্টোরেজ বাটন রয়েছে যেটার মাধ্যমে সিটের নিচের ১৮ লিটারের স্টোরেজ বিন খোলা যায়।

সাসপেন্সন এর দায়িত্ব হ্যান্ডেল করে ফ্রন্টের টেলিস্ককোপিক ফরক এবং রিয়ারের মনোশক।ফ্রন্টের ব্রেকে ১৯০এমএম ডিস্ক ব্রেক (ঐচ্ছিক) অথবা ১৩০ এমএম ড্রাম ইউনিট আছে এবং রিয়ারে রয়েছে ১৩০এমএম ড্রাম ব্রেক।

৩টি পৃথক ভ্যারিয়েন্টে পাওয়া যাবে হোন্ডা গ্র্যাজিয়া (Honda Grazia)সাথে ৬টি রঙ থেকে পছন্দ করে নেয়ার সুযোগ থাকছে।

এসটিডি ভ্যারিয়েন্টের দাম বাংলাদেশে সম্ভাব্য প্রায় ১,৩৫,৮০০ টাকা হতে পারে, ড্রাম ব্রেকের সাথে এলোয় ভ্যারিয়েন্টের খুচরা মুল্য হতে পারে বাংলাদেশে ১,৩৯,৬৫০ টাকা এবং ফ্রন্ট ডিস্ক ব্রেক এর সাথে টপ ইন্ড ডালেক্স ভ্যারিয়েন্টের এর সম্ভাব্য দাম হতে পারে ১,৪৪,৫০০ টাকা প্রায়।

পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে হোন্ডা গ্র্যাজিয়া (Honda Grazia) ইতোমধ্যে লঞ্চ হয়েছে এবং এর সুবিধা, সৌন্দর্য এবং দামের কথা চিন্তা করে বাংলাদেশেও স্কুটারটি বেশ জনপ্রিয় হতে পারে বলে মনে হচ্ছে।

আশা করা যায় খুব শীঘ্রয় বাংলাদেশের রাস্তায়ও দেখা যাবে হোন্ডা গ্র্যাজিয়াকে।

Honda Grazia Specifications

Engine

  • Engine Cc124.9 cc
  • No Of Cylinder1
  • Max Power8.52 bhp @ 6500 rpm
  • Max Torque10.54 Nm @ 5000 rpm
  • Valves Per Cylinder2
  • Fuel DeliveryCarburetor
  • Cooling SystemFan Cooled
  • Starting MechanismSelf / Kick Start

Dimension and Weight

  • Kerb Weight107 kg
  • Length1812 mm
  • Width697 mm
  • Height1146 mm
  • Wheelbase1260 mm
  • Ground Clearance155 mm
  • Seat Height766 mm

Chassis and Suspension

Comments

comments

Join the discussion

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।