ওয়ালটন প্রিমো ZX2 -রিভিউ

উচ্চমানসম্মত এমোলেড ডিসপ্লে, মাইক্রো এসডি এবং ডুয়েল স্লিম স্লট এর সমন্বয়ে ওয়ালটন প্রিমো ZX2 (walton primo ZX2)এখন আরো উন্নত ও শক্তিশালী। জেডএক্স ২ ওয়ালটন প্রিমো সিরিজের নুতন আর একটি স্মার্টফোন। আমরা এ বছর ওয়াল্টন মোবাইলে ব্যাপক পরিবর্তন দেখতে পেয়েছি। ওয়ালটন প্রিমো সিরিজ সঠিক সময়ে নতুন রূপে বাজারে এসেছে। যারা বড় স্মার্টফোন পছন্দ করেন ZX2 তাদের জন্য দুই হাতে চালানোর উপযুক্ত অনন্য একটি মোবাইল ফ্যাবলেট (phablet)। থ্রিজি সুবিধাসম্পন্ন ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স ২ (walton primo ZX2) ছিল ২০১৪-১৫ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশে সর্বাধিক বিক্রিত স্মার্টফোন।বাংলাদেশে এই স্মার্টফোনের দাম প্রায় ২৮,৯৯০ টাকা।

আমরা এখন ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স ২ (walton primo ZX2) সম্পর্কে বিস্তারিত রিভিউ করব ।

Walton primo ZX2 (প্রিমো জেডএক্স ২) ওয়ালটনের জনপ্রিয়তার ধারাবাহিকতায় আর একটি নতুন নাম।নতুন এই ওয়ালটন ফোনটি অত্যন্ত চমৎকার এবং অসাধারন একটি এন্ড্রয়েড ফোন আর এটি তৈরি করেছে ওয়ালটন ফোন বাংলাদেশ। ফিচারের দিক দিয়ে ওয়ালটনের নতুন এই প্রিমো জেডএক্স ২ স্মার্টফোনটি সত্যিই অসধারন।

ভাল দিক

 অত্যাধুনিক এবং চমৎকার ডিসপ্লে।

 ২৪ মেগা পিক্সেল উচ্চমানসম্মত ক্যামেরা। এছাড়া ফ্রন্ট ক্যামেরা দিয়ে অনেক

ভাল মানের সেলফি তোলা যায়।

 অত্যন্ত ভাল পারফরম্যান্স।

 অতিরিক্ত স্টোরেজ সুবিধা।

 চমৎকার গঠন আকৃতি এবং সেরা অডিও কোয়ালিটি।

খারাপ দিক

 ব্যাটারি লাইফ অনেক কম।

 সীমিত ফোর জি এলটিই সুবিধা।

এন্ড্রয়েড ডিজাইনটি সামাঞ্জস্যপূর্ণ নয়, তাছাড়া যে এন্ড্রয়েড ভার্সন ব্যবহার করা হয়েছে সেটি বর্তমান সময়ের সব ধরনের উচ্চ পর্যায়ের চাহিদা পূরন করার জন্য ততটা উন্নত নয়।

 স্পীকার দিয়ে ভাল ভাবে কথা শোনার জন্য কানের কাছে ধরে রাখতে হয়।

Walton primo ZX2 (ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স ২) ব্যবহারকারীরা যা বলেন:

আধুনিক এবং শক্তিশালী হার্ডওয়্যার সম্বলিত ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স ২ একটি সাশ্রয়ী আনলকড মোবাইল ফ্যাবলেট। আর এ কারণেই এটি অন্যান্য দামী ব্র্যান্ড এর একটি অসাধারন বিকল্প।এর ব্যবহারকারিরা এটিকে ডিসপ্লে,ডিজাইন,পারফরম্যান্স , সফটওয়্যার এর কার্যকারিতা, ক্যামেরার গুনাগুন আর ব্যাটারি লাইফের উপর ভিত্তি করে ১০ এর ভিতর এটির সার্বিক রেটিং করেছেন ৮.৭। আর প্রিথক রেটিং গুলোও নীচে দেখতে পারেন-

[wp-review id=””]

এই রিভিওটা লেখার সময় আমি অনেক অবাক হয়ে গিয়েছিলাম কারন এটিকে  Blu Pure XL , ব্লুপিউর এক্সেল ফোন বা যায়ন এলিফ ই৮ or Gionee Elife E8 বললেও ভূল হবে না। প্রিমো জেডএক্স ২ আর ব্লু পিউর এক্সেল ফোন এর ফিচার আর স্পেসিফিকেশন সম্পূর্ন এক।

walton-primo-zx2

blu-pure-xl-vs walton-primo-zx2

ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স ২ এর মূল্য

বাংলাদেশে ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স ২ এর মূল্য হচ্ছে ৩৫,৯৯০ টাকা।

আধুনিক এবং শক্তিশালী হার্ডওয়্যার সম্বলিত ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স ২ একটি সাশ্রয়ী আনলকড মোবাইল ফ্যাবলেট। আর অন্যান্য দামী ব্র্যান্ড এর একটি অসাধারন বিকল্প।

ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স ২ এর প্রধান বৈশিষ্ট্যসমুহ

walton-primo-zx2-specification

ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স ২ এর রিভিউ

ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স ২ এর ফ্রেমটি সম্পূর্ন এলুমিনিয়াম এর তৈরি। এতে আরো আছে কোয়াড এইচডি এমোলেড ৬ ইঞ্চি ডিসপ্লে, শক্তিশালী স্টোরেজ এবং উচ্চ মানসম্পন্ন আরো অনেক ফিচার। ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স ২ একটি আনলকড ফোন এবং মোবাইল ট্যাবলেট এবং এটি নেক্সাস সিক্স পি, স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ৫ অথবা অ্যাপল আইফোন সিক্স এস এর সাথে তুলনাযোগ্য। মানের ক্ষেত্রে এটি সবদিক দিয়ে যোগ্য না হলেও দামের কারণে আপনি এই ফোন ব্যবহার করে অনেক আনন্দ পাবেন। ওয়ালটন এর নতুন প্রিমো জেডএক্স ২ মোবাইলের দাম এখনও অনেক বেশি (৩৫,৯৯০ টাকা) যদিও গত বছর বাংলাদেশে ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স (Walton Primo ZX) মোবাইলের দাম ছিল প্রায় ২৮,৯৯০ টাকা।

ডিজাইন

ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স ২ মোবাইলে রয়েছে ৬ ইঞ্চি বড় পর্দার ডিসপ্লে অতএব এটি নিঃসন্দেহে বিশাল আকৃতির ফোন। এর আয়তন নেক্সাস সিক্স এর মতই। এতে আছে এক সেট বড় সরু ফ্রেম এবং এটি ৯.৬ মি.মি. চিকন এবং ওজন হচ্ছে ২০৭ গ্রাম। এর প্রতিটি কোনা গোলাকার এবং প্রান্তগুলোও খুব সুন্দর করে বাকানো তাছাড়া পাশগুলোও অনেক তীক্ষ্ণ। প্রান্তগুলোর উপরে এলুমিনিয়াম ব্যান্ড লাগানো আছে কাজেই আপনি যদি আগে বড় পর্দার ফোন চালিয়ে থাকেন তাহলে সহজেই এই মোবাইল আপনি আপনার মুঠোবন্ধি করতে পারবেন।

walton-primo-zx2-review-product-review-bd

এছাড়া এর পিছনের কভার অনেক নিখুত এবং মসৃন যে কারনে আপনি এই ফোন আরামদায়কভাবে মুঠোর ভিতরে ধরে রাখতে পারবেন । পিছনের কভার এর সাথেই মাইক্রো সিম কার্ড স্লট এবং মেমোরী কার্ড স্লট আছে এবং আপনি চাইলে কভার বদলাতে পারবেন কিন্তু ব্যাটারীটি অপরিবর্তনযোগ্য।পাওয়ার বাটন এবং ভলিউম বাটন হচ্ছে উপরের দিকে বাম পাশে।

walton-primo-zx2-inside

একই দিকে আবার একটি আলাদা ক্যামেরা শাটার বাটন রয়েছে যেটা দিয়ে আপনি সরাসরি ক্যামেরা অপশন চালু করতে পারবেন এমনকি ফোন লক থাকা অবস্থায়ও।

হেডফোন এর জ্যাক একদম উপরের দিকে এবং মাইক্রো ইউএসবি পোর্ট হচ্ছে নিচেরদিকে।

walton-primo-zx2-audio-jackpot

আর পিছনে ক্যামেরার ঠিক নিচেই আছে একটি ফিংগারপ্রিন্ট স্ক্যানার।

ডিসপ্লে

ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স ২ এ আছে কোয়াড এইচডি রেজুলোশন সম্পন্ন ৬ ইঞ্চি সুপার এমোলেড ডিসপ্লে। কর্নিং গড়িলা গ্লাস 4 ব্যবহার করার কারণে ডিসপ্লেটী অনেক দৃঢ় ও মজবুত। কোয়াড এইচডি রেজুলেশন থাকার কারণে ডিসপ্লেটা অনেক পরিষ্কার কিন্তু উজ্জ্বলতা তেমন ভাল না। পুরনো মোবাইলের মতই এই মোবাইলেও সরাসরি রোদের আলোতে সহজে কিছু দেখা যায় না।

যদিও দাম অনেক বেশি কিন্তু হাই রেজুলোশনের ডিসপ্লে আর বড় স্ক্রীনের কারণে ওয়ালটন মোবাইল বাংলাদেশের নতুন এই মোবাইলটি প্রচুর বিক্রি হচ্ছে।

ফিঙ্গারপ্রিন্টস

ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স ২ এর পিছনের দিকে একটী গোলাকার ফিঙ্গার প্রিন্ট সেন্সর আছে। সত্যি বলতে আমি প্রথমবারের চেষ্টায় সেন্সরটি কাজে লাগাতে পারিনি। আমার মতে তাড়াতাড়ি লক খোলার জন্য ফিঙ্গারপ্রিন্ট থেকে সরাসরি পাসওয়ার্ড ব্যবহার করাই সবচেয়ে ভাল।

walton-primo-zx2-fingerprint-sensor

এই মোবাইলের ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর তেমন ভাল না। আমি যতবারই চেষ্টা করেছি এটি একবারও প্রথম বারের চেষ্টায় আমার আঙ্গুলের ছাপ সনাক্ত করতে পারে নি। লক খোলার জন্য আমাকে দুইবার এমনকি তিনবার পর্যন্ত চেষ্টা করতে হয়েছে। সফটওয়্যার আপডেট করে ওয়ালটনের এটাকে আরো উন্নত করা উচিত।

ক্যামেরা

 এই ফোনের ২৪ মেগাপিক্সেল লেন্স, অপটিক্যাল ইমেজ স্ট্যাবিলাইজেশন , ফেস ডিটেকশন, অটো ফোকাস এবং টু টোন এলইডি ফ্ল্যাশ লাইট সম্বলিত অসাধারন ক্যামেরাকে আপনি স্যামসাং গ্যালাক্সি S7 এবং স্যামসাং গ্যালাক্সি S7 এজ স্মার্টফোনের সাথে তুলনা করতে পারেন। ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স ২ এর ক্যামেরারপারফরম্যান্স অনেক ভাল বিশেষ করে পর্যাপ্ত আলোর মধ্যে।

walton-primo-zx2-camera-produc-reviewbd-bd

সেলফি তোলার জন্য সামনের দিকে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল ওয়াইড এঙ্গেল ফ্রন্টএর ক্যামেরায় অনেক ধরনের অসাধারন মোড যেমন প্যানারোমা, এইচডিআর মোড,প্রো মোড এ ছবি তুলতে পারবেন।

walton-primo-zx2-camera-features

আরেকটি অসাধারন ব্যাপার হচ্ছে আপনি এই ক্যামেরা দিয়ে কয়েকটা ছবিকে একসাথে করে একটি বড় আকারের ছবি তৈরি করতে পারবেন। এছাড়া সফটওয়্যার নির্ভর ম্যাজিক ফোকাস ফিচারটিও অনেক কার্যকরী। স্ক্রীনের উপরের দিকে ১৩ মেগাপিক্সেল এর অটোফোকাস অপশন আছে এবং এটা অনেক ভাল কাজে দেয়। আর f/2.2 এপার্চার অনেক ভাল ভাবে লাইট রিফ্লেকশান নিয়ন্ত্রন করে এবং এটি ল্যান্ডস্ক্যাপ মোডে ছবি তোলার জন্যও যথেষ্ট। ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স ২ সেলফি প্রেমীদের জন্য একটি উপযুক্ত ফোন।

walton-primo-zx2-camera-mode-produc-reviewbd-bd

প্রিমো জেডএক্স ২ ক্যামেরা দিয়ে তোলা ছবি

walton-primo-zx2-camera-picture-mode

ব্যাটারী লাইফ

এই ফোনে আছে অপরিবর্তনযোগ্য ৩৫০০ এমএএইচ লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারী। বড় এবং উজ্জ্বল ৬ ইঞ্চি এমোলেড ডিসপ্লের কারণে ব্যাটারীর চার্জ তাড়াতাড়ি শেষ হয়ে যায়। তাই আপনার কাছে আমার প্রশ্ন, আপনি কী ৩৫,৯৯০ টাকা দিয়ে এর থেকে আরো ভালো কিছু চান? একবারের চার্জে এই মোবাইল টানা ১৪ ঘন্টা চলে এবং একই সাথে ২ ঘন্টা ৪৫ মিনিট পর্যন্ত স্ক্রীন অন করে রাখা যায়। তবে আমি বলব ওয়ালটনের এই বিষয়টা দেখা উচিত কারন এত টাকা খরচ করার পরে আরো ব্যাটারী লাইফ আশা করাই আশ্চর্যের বিষয় হল আমি ৫ মিনিটেরও কম সময়ে মাত্র দুইটা গেম খেলতেই ফোনটা অনেক গরম হয়ে গেল। ওই ৫ মিনিটে গেম খেলার পাশাপাশি ফেসবুকে কয়েকটা ছবি দেখেছিলাম । আর এতে করেই ব্যাটারী ১৫ পারসেন্ট নেমে গিয়েছিল। দ্রুত চার্জ ফুরিয়ে যাওয়া উচু পর্যায়ের মোবাইলের একটা বিরাট বড় সমস্যা।

ওয়ালটন এন্ড্রয়েড মোবাইলঃ ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স ২  এর এন্ড্রয়েড ফিচার সমূহ

জেডএক্স ২ এর এন্ড্রয়েড ফিচার সমূহ প্রিমো জেডএক্স ২ এন্ড্রয়েড ৫.১ এ চলে (এন্ড্রয়েড ওএস, ভি৫.১ ললিপপ)। অবাক করা বিষয় হল এখানে কোন এপ ড্রয়ার নেই তাই এপ আইকন গুলো আইওএস স্টাইল এ হোম স্ক্রীনে আসে। এন্ড্রয়েড ব্যবহারকারীরা হয়তবা একটু অবাকই হতে পারে এবং মানিয়ে নিতে একটু সময় লাগতে পারে। এপ ড্রয়ারের অভাব হয়তবা এন্ড্রয়েড ভক্তদের জন্য তেমন একটা অসুবিধার কারণ হবে না কারন আপনি ড্রয়ার টেনে নিচে নামালেই নোটিফিকেশন দেখতে পারবেন।ডিফল্ট টাচপ্যাড কীবোর্ডে তেমন বিশেষ কিছু পরিবর্তন দেখা যায় নি, আর বেশির ভাগ সিস্টেম এপ্লিক্যাশন এবং সেটিংস মেনু সম্পূর্ন এন্ড্রয়েড স্টাইলেই পুনরায় ডিজাইন করা হয়েছে।

এখানে আরো কিছু মজাদার এবং প্রয়োজনীয় ফীচার রয়েছে যেমন স্মার্ট গেশ্চার, এপ পারমিশন এবং আরো কিছু সাধারন সেটিং অপশন যেমন নোটিফিকেশন এলইডি। এছাড়াও আপনি এই ডিভাইস দিয়ে আপনার নিজের মত করে থিম পছন্দ বা তৈরিও করতে পারবেন।

পারফরম্যান্স এবং হার্ডওয়্যার

ওয়ালটন জেডএক্স ২ তে আছে ৬৪ বিট অক্টা কোর প্রসেসর, ২ গিগাহার্টয ক্লক ফ্রিকোয়েন্সি এবং পাওয়ার ভিআরজি ৬২০০ জিপিইউ এবং ৩ গিগাবাইট র‍্যাম।এই ফোনের পারফরম্যান্স, ইন্টারফেস, চালু করা, বন্ধ করা এবং এপ্লিকেশন পরিবর্তন অত্যন্ত দ্রুত এবং সবকিছুই অত্যন্ত নিখুত এবং তাড়াতাড়ি করে করা যায়। এর ফিচার গুলোও গেম খেলার জন্য অত্যন্ত ভাল।

প্রিমো জেডএক্স ২ তে আছে ৬৪ গিগা বাইট অভ্যন্তরীন স্টোরেজ এছাড়া আপনি মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহার করে স্টোরেজ আরো ৬৪ গিগা বাইট পর্যন্ত বাড়াতে এর হাই-ফাই অডিও এবং ডিটিএস সাউন্ড অত্যন্ত চমৎকার। এতে হঠাৎ করে জোরে কোন শব্দ হতে শোনা যায় নি। নতুন এই ওয়ালটন মোবাইলের পিছনের দিকে আছে ডুয়াল স্টেরিও স্পীকার সেটআপ যা কোনরূপ বিকৃতি ছাড়াই অনেক জোড়ালো শব্দ উৎপন্ন করতে পারে।

এই ফোনের পিছনের দিকে একটি ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার আছে। এই স্ক্যানার দিয়ে আঙ্গুলের ছাপ নেয়া সম্ভব এবং এটি দিয়ে বিভিন্ন ফাইলও লক করে রাখা যাবে। কিন্তু এটি শুধুমাত্র ফোন আনলক করতে গেলেই কাজ করে না। আমার মনে হয়দামের সাথে গুনের সামঞ্জস্য রাখার জন্য ওয়ালটন মোবাইল তাদের সফটওয়্যারের এই সমস্যাটা দেখা উচিত।

ব্যাটারী লাইফ নিয়ে আর কী বলব! ব্যাটারী হচ্ছে ফোনের প্রান আর সেখানে আছে মাত্র ৩৫০০ এমএএইচ অপরিবর্তনযোগ্য ব্যাটারী। এত উচু দামের তুলনায় এই ফোনের ব্যাটারী সত্যিই অনেক নিম্ন মানের।ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স ২ তে মিডিয়াটেক চিপ ব্যবহার করা হয়েছে এবং এতে এর সর্বোচ্চ সুবিধা দেয়া হয় নি।

শেষ কথা

এই ফোনের কিছু ত্রুটি আছে, এছাড়া সীমিত ফোর জি এলটিই সুবিধা, বাজে ব্যাটারী লাইফ এবং এন্ড্রয়েড সফটওয়্যারের কারণে আমি এই ফোন কেনার জন্য না করব। তবে আপনি যদি এর চমৎকার এবং বড় কোয়াড এইচডি ডিসপ্লে, অসাধারন পারফরম্যান্স এবং অসাধারন ক্যামেরার প্রতি আকৃষ্ট হন তাহলে আপনি এই মোবাইলটি চড়া দাম দিয়ে কিনার কথা বিবেচনা করে দেখতে পারেন।

প্রিমো জেডএক্স ২ বিস্তারিত : Primo ZX2 Specifications

ডিসপ্লে ৬ ইঞ্চি সুপার এমোলেড ডিসপ্লে

২৫৬০ x ১৪৪০ রেজুলোশন, ৪৯০ ডিপিআই

প্রসেসর ২ গিগা হার্টজ অক্টা কোর মিডিয়াটেক হেলিও এক্স১০ প্রসেসর
র‍্যাম ৩ গিগাবাইট
স্টোরেজ ৬৪ গিগাবাইট

৬৪ গিগাবাইট পর্যন্ত মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহার করে স্টোরেজ আরো বাড়ানো যাবে

কানেক্টিভিটি ওয়াই-ফাই 802.11 b/g/n/ac

ব্লুটুথ ৪.০

মাইক্রো ইউএসবি ২.০

জিপিএস+গ্লোনাস

ক্যামেরা ২৪ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা সাথে ডুয়াল এলইডি ফ্ল্যাশ

৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা

সফটওয়্যার এন্ড্রয়েড ৫.১ ললিপপ
ব্যাটারী ৩৫০০ এমএএইচ
আয়তন ১৬৪ x ৮২.২ x 9.6 মি.মি.

২০৭ গ্রাম

Join the discussion

3 thoughts on “ওয়ালটন প্রিমো ZX2 -রিভিউ

  1. Стрелки — один из самых модных мейкап-трендов этого сезона. На показах весенне-летних коллекций визажисты продемонстрировали различные вариации стрелок: классические, двойные, дополненные цветными акцентами и блестками… Редакция предлагает свою подборку подводок для воплощения самых смелых идей в макияже глаз. Женщины для того, чтобы выгодно подчеркнуть красоту своих черт и скрыть недостатки, делают макияж. Подчеркивают в большинстве случаев глаза, поскольку именно на них обращают внимание. Если подводка выполнена качественно, то взгляд женщины будет выразительнее. Нарисовать красивые стрелки можно с помощью лайнера, благодаря которому процесс накладывания макияжа будет легким и удобным. Описание: Революционное средство с формулой высокой стойкости сочетает четкость линии подводки и легкость нанесения карандаша, позволяя получить превосходный результат быстро и легко. С помощью уникального тройного аппликатора подводка 3-Dot Liner заполняет пространство между ресницами «точка к точке» и повторяет их изгиб, делая взгляд выразительным и при этом естественным. https://centroherramientasparalavida.com/community/profile/deneseslowik786/ Быстрая доставка лекарств из ближайшей аптеки улица Островитянова, 18, ТЦ “Лабиринт” Выкупить ваше бронирование в аптеке вы можете только после получения смс-уведомления. Дождитесь смс об окончании сборки! Срок сборки может составлять от одного до четырех часов. Небольшое количество масла наносится на чистые брови и ресницы. Процедуру рекомендуется проводить перед сном. Цена зависит от выбранной аптеки и действительна только при заказе с сайта Поделитесь своим мнением о нём, это может быть полезно для других пользователей. Вот список привычек, которые помогут лучше ухаживать за собой и сделать любое средство для роста ресниц в домашних условиях еще более сильным. Обратите внимание, что иногда касторка может вызывать аллергию. За день до бьюти-процедуры проведите тест на реакцию кожи: нанесите масло на внутреннюю часть предплечья на три часа. Если в течение этого времени у вас появились сыпь, зуд или другие признаки раздражения кожи, от использования масла лучше отказаться.

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।