Samsungs Galaxy S7 এবং S7 Edge-রিভিউ

Samsungs Galaxy S7 and S7 Edge এ আছে তুলুনামুলক বড় সাইজের ব্যাটারি আর উন্নত ক্যামেরা এবং পানি নিরোধক বৈশিষ্ট্য । Samsung  বাজারে তাদের নুতন চমক দিয়েছে Samsungs Galaxy S7 and S7 Edge এর প্রবেশ ঘটিয়ে।

 Galaxy S7 এ রয়েছে ৫.১ ইঞ্চি কোয়াড হাইডিফিনেশন সুপার AMOLED (active-matrix organic light-emitting diode) ডিসপ্লে। আর S7 Edge আছে মসৃণ বাঁকানো কর্নারের ৫.৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে।

galaxys7

Samsungs Galaxy S7 এবং S7 Edge দুটোতেই অপারেটিং সিস্টেম হল Samsung’s TouchWiz ইন্টারফেসের সাথে সর্বাধুনিক অ্যান্ড্রয়েড ৬.০

মার্সম্যালো। Samsung এর নতুন ডিভাইসের মেমোরি স্পেস নিয়েও এর ইউজারদের আর কোন চিন্তা করতে হবে না। ৩২ জিবি মেমোরি থাকছে সব কিছুতেই। এরপরও যদি আপনার আরও মেমোরি স্পেস দরকার হয়, আপনি অনায়াসেই ২০০ জিবির মাইক্রো এসডি কার্ড সংযুক্ত করতে পারেন। এছাড়া, Samsung এর S7 লাইনের সব ফোনে দেয়া হয়েছে কোয়ালকম’স স্নাপ ড্রাগন ৮২০ প্রসেসর।

galaxy-s7-micosdslot

Samsung এর মার্কেটিং মনে করছে যে, পানি নিরোধক আকর্ষণীয় বৈশিষ্ট্যগুলি Samsung এর ক্রেতাদের নুতনভাবে আকর্ষণ করবে। এটি ৫ ফুট পানির নীচে ৩০ মিনিট থাকলেও ফোনটি অক্ষত থাকেবে বলেই কোম্পানিটি এর ব্যবহারকারীদের নিশ্চিত করছে।

samsung-galaxy-s7-product-review-bd samsung-galaxy-s7-

ফোনটির ব্যাটারির চার্জ নিয়েও এর ব্যবহারকারীদের আর ভাবতে হবে না। Samsung বলছে যে, অতি অল্প সময়ের মধ্যে এর অধিক শক্তিশালী ব্যাটারি ০ থেকে ১০০% চার্জ নিয়ে নেবে।Samsungs Galaxy S7 এবং S7 Edge এর ক্যামেরার বিষয়ে না বললেই নয়। এর ব্যাক সাইডের ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরায় রয়েছে এডজাস্টেবল ফিচার আর এর ১.৯এফ স্টপ ভ্যালু যে কোন পরিমান আলোতেই পরিষ্কার ছবি তুলতে সক্ষম । সেলফি

তোলার জন্য সামনের দিকে আছে ৫ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা যা LED ফ্ল্যাশ এবং অ্যাডভান্সড ফটো সেটিংস সমৃদ্ধ।

Samsungs Galaxy S7 এ রয়েছে ১২ মেগা পিক্সেল এর ক্যামেরা । যদিও এর আগের ভার্সনের রিজুলেশন ছিল ১৬ মেগাপিক্সেল। কিন্তু, Samsungs কোম্পানি প্রচার করছে যে, অল্প আলোতে ছবি তোলার জন্য এটিই সেরা।

camera

ক্যামেরার লেন্সটি অধিক উজ্জলতর এফ/১.৭ অ্যাপেচার সমৃদ্ধ যা পূর্বের তুলনায় ২৫% বেশী আলো ধারন করতে সক্ষম। সেন্সর ও ক্যামেরা গত বছরের Samsungs Galaxy S7 এবং S7 Edge তুলনায় অনেক বেশী সমৃদ্ধ যা অল্প আলোর ফটোগ্রাফিকেও সহজ করছে। সেন্সর এর আকৃতিও পরিবর্তন করা হয়েছে। যা আগে wide-format অনুপাত ছিল ১৬:৯ এখন তা করা হয়েছে ৪:৩।

Samsung কোম্পানি samsung s7 edge এর বিষয়ে দাবী করছে যে, নুতন ক্যামেরার ফোকাসের মাধ্যমে আগের তুলনায় ৩ গুন বেশী দ্রুত ছবি তোলা সম্ভব। আর dual-pixel সিস্টেম এর জন্য প্রতি ছবির জন্য ১২ মিলিয়ন পিক্সেল পর্যন্ত ক্যাপচার করতে সক্ষম।

এছাড়া রয়েছে, সম্প্রসারণযোগ্য স্টোরেজ আর পানি প্রতিরোধক বৈশিষ্ট্য আগের Galaxy মডেল যেমন S6 বা S7 গুলির মতো। এছাড়া, পূর্বের মতো নুতন মডেল গুলীর ব্যাটারিও সরানোযোগ্য নয়।

স্মার্টফোনের ব্যাটারির আয়ু নিয়ে কম বেশী সবায় একটু চিন্তিত। উন্নত হার্ডওয়্যারের সাথে সাথে Samsung তার samsung galaxy S7 -এ ৩০০০ mAh আর samsung galaxy S7 Edge এ ৩৬০০ mAh ব্যাটারি সংযুক্ত করেছে।

ব্যাটারিগুলি সত্যি আগের তুলনায় বড় আর শক্তিশালী । এই ফোন দুটির ব্যাটারি দিয়ে samsung আইফোনকেও প্রতিযোগীতায় হারিয়ে দিয়েছে। Samsungs Galaxy S7 এবং S7 Edge এর ব্যাটারি লাইফ আইফোন ৬এস থেকেও বেশি স্থায়ী । ব্যাটারির বিষয়ে Samsungs Galaxy S7 এবং S7 Edge এর আরও কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল আর নতুন ফোনের মডেল দুটিতে নতুন স্ক্রিন অন ফিচার যোগ করা হয়েছে । এই ফিচারের বৈশিষ্ট্য হল ফোন সেট লক করার পরও আপনার ফোনের স্ক্রিন চালু থাকে এবং এতে সময় আর তারিখ সব সময় দেখা যায়। কিন্তু সমস্যা হল স্ক্রিন চালু থাকায় ব্যাটারির চার্জ তাড়াতাড়ি শেষ হয়। তবে samsung দাবী করছে যে, নুতন এই স্ক্রিন অন ফিচার খুব বেশী ব্যাটারি চার্জ খরচ করবে না।

battery-s7

শিগ্রই আমরা samsung galaxy s7  এবং samsung galaxy s7 edge এর রিভিউ নিয়ে আপনাদের কাছে ফিরে আসবো। আরও তথ্যের জন্য আপনারা Samsung Mobile Bangladesh  এবং  Mobile World Congress এই সাইট দুটি ভিজিট করতে পারেন।

Comments

comments

Join the discussion

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।